Breaking News

স্বাস্থ্য বটিকাঃ হেঁচকির হাত থেকে মুক্তি পান নিমিষেই !

স্বাস্থ্য বটিকাঃ

হেঁচকির হাত থেকে মুক্তি পান নিমিষেই!


কোন দাওয়াতে হয়তো বেশ পরিপাটি হয়ে খেতে গিয়েছেন কথা বলছেন সবার সাথে হাসিমুখে চারপাশে অনেক মানুষ এর ভেতরেই হঠাত্ হেঁচকি উঠতে শুরু হল এবার? এবার কী করবেন আপনি? পানি পান করবেন? কিন্তু তাতেও যদি এই বিরক্তিকর ঝামেলা পিছু না ছাড়ে? আপনার জন্যেই দেওয়া হল খুব দ্রুত হেঁচকির হাত থেকে মুক্তির উপায়

. মুখ ঢেকে ফেলুন

হেঁচকি শুরু হলে সাথে সাথেই হাত দিয়ে নাক আর মুখের চারপাশের এলাকা ঢেকে ফেলুন হাত দিয়ে খুব শক্তভাবে না হলেও একেবারে আলগাভাবে নয় তবে শ্বাস নেওয়া একেবারেই যেন বন্ধ না হয় বরং ধীরে ধীরে স্বাভাবিকভাবেই শ্বাস নিতে থাকুন কিছুক্ষণ এতে করে আপনার শরীরে শ্বাসের সাথে সাথে একটু বেশি পরিমাণ কার্বনডাইঅক্সাইড প্রবেশ করবে যেটা কিনা সারিয়ে তুলবে হেঁচকি সমস্যাকে

 [ads-post] 

. হাত চেপে ধরুন

নিজের হাতগুলোকে কাজে লাগান ডান হাত দিয়ে বাম হাতের বুড়ো আঙ্গুলকে চেপে ধরুন কিংবা বাম হাতের মাঝখানটায় ডান হাতের বুড়ো আঙ্গুল শক্ত করে চেপে ধরুন যতটা শক্তভাবে চাপ দেবেন ব্যাপারটা ততই কার্যকরী হবে এটা তেমন কিছুই না, বরং আপনার মস্তিষ্ককে অন্যদিকে চালিত করার কৌশল শরীরের এই খানিক অস্বাভাবিকতা আর অস্বস্তি খানিকটা সময়ের জন্য হলেও আপনার মস্তিষ্ককে ভুলিয়ে দেবে হেঁচকির কথা আর আপনা আপনিই বন্ধ হয়ে যাবে সেটি

. শ্বাস আটকে রাখুন

একটা বড়সড় দম নিয়ে শ্বাসকে আটকে রাখুন শ্বাস শেষ হয়ে গিয়েছে? কষ্ট হচ্ছে? ছটফট করছেন শ্বাস নেওয়ার জন্যে? আরেকটু অপেক্ষা করুন শরীরের ওপর কৌশলে চাপ প্রয়োগ করবে এই ছোট্ট ব্যাপারটি আর সেইসাথে শ্বাসনালীর ভেতরে তৈরি করবে অতিরিক্ত পরিমাণ কার্বন ডাই অক্সাইড থেমে যাবে হেঁচকি

. কান মুখের সাহায্য নিন

নিজের কানদুটোকে বেশকিছুক্ষণ চেপে ধরে রাখুন এছাড়াও কানের নরম অংশগুলোতে চাপ প্রয়োগ করতে পারেন এতে করে আপনার শরীরে বিশ্রামের একটি সংকেত পৌঁছে যাবে কান ছাড়াও এক্ষেত্রে আপনাকে সাহায্য করতে পারে আপনার মুখ মুখ থেকে জীহ্বাকে বের করে রাখুন একটু সময় তবে খেয়াল রাখুন যাতে আশেপাশের কেউ সেটা না দেখতে পারে

. পানি পান এবং...

হেঁচকি উঠলে দৌড়ে মানুষ পানি পান করতে চলে যায় তবে এর পরেরবার হেঁচকি উঠলে পানি পানের সময় দুই হাত দিয়ে কান দুটোকেও বন্ধ করে রাখুন মূলত, আলাদা আলাদাভাবে পানি পান কিংবা কান চেপে রাখা না করে দুটো কাজ একসাথে করাটাই এর প্রধান উদ্দেশ্য এতে করে অনেক বেশি কার্যকরী হবে আপনার জন্য ব্যাপারটি


স্বাস্থ্য বিষয়ক আরও কিছু পোষ্ট