ভাবসম্প্রসারনঃ সৎ সঙ্গে স্বর্গবাস অসৎ সঙ্গে সর্বনাশ - সেরা-সংগ্রহ.কম
X

Friday, November 18, 2016

ভাবসম্প্রসারনঃ সৎ সঙ্গে স্বর্গবাস অসৎ সঙ্গে সর্বনাশ

ভাবসম্প্রসারনঃ 

সৎ সঙ্গে স্বর্গবাস অসৎ সঙ্গে সর্বনাশ

[ads-post]


সৎ সঙ্গে স্বর্গবাস অসৎ সঙ্গে সর্বনাশ

মানুষ সামাজিক জীব। সে চাইলেই একা থাকতে পারে না। সমাজে বসবাস করতে হলে সব ধরণের মানুষের সাথে চলাফেরা করতে হয়। সেখানে ভালো মানুষ যেমন আছে তেমনি খারাপ মানুষও আছে। তবে জন্মগত ভাবে মানুষ খারাপ হয় না। পরিবেশ, পরিস্থিতি, আর সঙ্গী সাথীর কারণে মানুষের চরিত্র কলঙ্কিত হয়। 

তাই বন্ধু নির্বাচনের ক্ষেত্রে সচেতন থাকতে হবে। সৎ বন্ধু ভালো পরামর্শ দিয়ে, সহযোগিতা করে জীবনের লক্ষ্যে পৗঁছাতে সাহায্য করে। জীবনকে সুন্দর ও অর্থবহ করে তুলতে পারে সৎ সঙ্গ। তাই সৎ সঙ্গ সবাই কামনা করে। সৎ সঙ্গের বিপরীত হচ্ছে অসৎ সঙ্গ। যাদের মাধ্যমে কখনই ভালো কিছু আশা করা যায় না।

সৎ সঙ্গীর পরামর্শ অনেক সাফল্য এনে দিতে পারলেও অসৎ সঙ্গীর পরামর্শ জীবনকে ধ্বংস করে দিতে পারে। একজন মানুষ ভালো কি মন্দ তা বোঝা যায় তার বন্ধু নির্বাচনের মাধ্যমে। কোনো মানুষের বন্ধু বা সঙ্গী যদি ভালো না হয় তবে তাকে সবাই খারাপ মনে করে। অসৎ সঙ্গীর কারণে ভালো মানুষও একসময় বিপথে চলে যায়। অন্যদিকে সৎ সঙ্গ জীবনকে সাফল্যমন্ডিত করে তোলে। 

মানুষ যখন কোনো বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারে না তখন একজন ভালো বন্ধু সৎ পরামর্শ দিয়ে সাহায্য করতে পারে। কোনো মানুষের আচরণ, চরিত্র কেমন হবে সেটা বোঝা যায় তার সঙ্গী-সাথী দেখে। মানুষ তার সঙ্গী দ্বারা অনেকটাই প্রভাবিত হয়। ভালো মানুষের সঙ্গ খারাপ ব্যক্তিকেও ভালো করে, আবার খারাপ মানুষের সংস্পর্শে ভালো মানুষও ধীরে ধীরে খারাপ হয়ে উঠে। 

শিক্ষা: ভালো সঙ্গীর অভাবে অনেক সময় মানুষের জীবন নষ্ট হয়ে যায়। আবার অনেকের জীবন সফল হয়ে ওঠে শুধু সৎ সঙ্গে চলার কারণে। তাই জীবনকে সুন্দর করতে চাইলে সৎ সঙ্গী গ্রহণ, আর অসৎ সঙ্গী বর্জন করতে হবে।